রণবীর-দীপিকার বাগদান!

বছর শেষের মুখে ছুটি কাটানোর মেজাজে থাকেন অনেকেই। তার উপরে আবার নতুন বছর শুরু হওয়ার দিন কয়েকের মধ্যেই চলে আসে প্রেমিকার জন্মদিন। ফলে, এই সময়টা রণবীর সিং দীপিকা পাড়ুকোন ছাড়া আর কাউকেই সময় দেন না। দীপিকাও সব কাজের থেকে ছুটি নিয়ে সময় কাটান শুধুই রণবীর সিংয়ের সাথে।

তা, এবারে কেন মলদ্বীপের ছুটিতে হাজির ছিলেন দুই পরিবারেরই অভিভাবকরা? এই প্রশ্নটাই এখন ভাবিয়ে তুলেছে বলিউডকে। এবং, শুরু হয়েছে কানাঘোষা, মালদ্বীপে ছুটি কাটাতে যাওয়ার নাম করে, সবার চোখে ধুলো দিয়ে বাগদান-পর্বটি সেরে ফেলেছেন রণবীর-দীপিকা। ঠিক যেমনটা করেছেন অানুশকা শর্মা আর বিরাট কোহলিও। ছুটি কাটাতে যাচ্ছেন- সবাইকে এটা বলেই তো বিয়ে সেরে ফেললেন তারা!

রণবীর-দীপিকাও সে রকমটাই বললেও খবর যা আসছে, তা ইঙ্গিত করছে বাগদানের দিকেই। কেন না, মাসখানেক আগেই রণবীর সিং তার পরিবারের সাথে হাজির হয়েছিলেন বেঙ্গালুরুতে প্রকাশ পাড়ুকোনের বাড়িতে। সেখানে নাকি ঠিক হয়ে গিয়েছিল দু’জনের বিয়ের তারিখ। এরপর দুই পরিবার একত্রে শুভকাজের ইঙ্গিত দিয়েছে।

অন্যদিকে, দীপিকা আর রণবীরের এই বাগদান পর্ব ঘিরে আরও একটা জোরদার খবর কানে এসেছে। নায়িকার এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু এটা মুখ ফসকে বলে ফেলেছেন যে, সব্যসাচী মুখোপাধ্যায়ের ডিজাইন করা একটা শাড়ি আর হিরের গয়নার সেট রণবীরের পরিবার থেকে দীপিকাকে উপহার দেওয়া হয়েছে। ভারতীয় বিয়ের বাগদানে বা আশীর্বাদে ছেলের বাড়ি থেকে মেয়েকে যে শাড়ি-গয়না দেওয়া হয়, সে কি কোনো অজানা ব্যাপার?

রণবীর-দীপিকার এই বাগদান সেরে ফেলার নেপথ্যে আরও এক জবরদস্ত ইঙ্গিত রয়েছে। সেটা শাড়ির ডিজাইনার সব্যসাচী মুখোপাধ্যায় সংক্রান্ত। ডিজাইনার সম্প্রতি মুম্বাইয়ে যে স্টোরটা খুলেছেন, সেখানকার সব পোশাকই বিশেষ ভাবে বিয়ের কথা মাথায় রেখে তৈরি করা। পোশাক থেকে গয়না থেকে জুতো- সব কিছু ‘সব্যসাচী’ নামের এই দোকানে মেলে যা শুধুই বিয়ের জন্যে মানানসই! এই শুভকাজ ছাড়া অন্য মুহূর্তের উপযোগী পোশাক সব্যসাচী ইদানীং তৈরি করছেনও না!

এবার কী বলবেন? আমরা বলি কী, খবরটা সাথে নিয়ে অপেক্ষার পালা চলুক! একদিন না এক দিন খবরটা তো জানাবেনই রণবীর-দীপিকা! তখনই সব গুজব কেটে গিয়ে সত্যিটা সামনে চলে আসবে!

Comments are closed.